গ্রাহকের প্রাইভেসি রক্ষায় ব্যর্থ হওয়ায় ফেসবুককে ৫০০ কোটি ডলার জরিমানা

0

কোটি কোটি ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় ব্যর্থ হওয়ায় ফেসবুককে ৫০০ কোটি ডলার জরিমানা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি)।

এছাড়াও জরিমানার পাশাপাশি গ্রাহকের তথ্যের নিরাপত্তা দিতে প্রতিষ্ঠানটিকে নতুন করে ‘প্রাইভেসি কমিটি’ করতে বলা হয়েছে।

জানা যায়, প্রায় ৮ কোটি ৭০ লাখ ব্যবহারকারীর তথ্য বেহাত ও অপব্যবহারের অভিযোগ নিয়ে এফটিসি গত বছরের মার্চ থেকে তদন্তে নামে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামজিক মাধ্যমটির বিরুদ্ধে। এফটিসি বলছে,গ্রাহকদের প্রাইভেসি ক্ষুন্ন করার ফলে এটাই তাদের সবচেয়ে বেশি জরিমানার পরিমাণ। এর আগে এই ঘটনায় অন্য কোন প্রতিষ্ঠানকে এত জরিমানা করেনি কমিশন।

ফেডারেল ট্রেড কমিশনের চেয়ারম্যান জো সিমন্স বলেছেন, ফেসবুক তাদের কোটি কোটি ব্যবহারকারীকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তাদের ব্যক্তিগত তথ্য কোথায় কিভাবে শেয়ার করা হবে সেটি তাদের নিয়ন্ত্রণেই থাকবে। কিন্তু ফেইসবুক তা করতে পারেনি।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা জরিমানা করলেও এখন এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবে মার্কিন বিচার বিভাগের সিভিল বিভাগ।চূড়ান্ত ওই সিদ্ধান্ত আসতে কত সময় লাগবে তা স্পষ্ট নয় বলে ভাষ্য সূত্রগুলোর।  শেষ পর্যন্ত এ ৫০০ কোটি ডলার জরিমানা বহাল থাকলে, তা হবে কোনো প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের ওপর এফটিসির আরোপ করা সর্বোচ্চ জরিমানা।

গত বছরের অক্টোবরে যুক্তরাজ্যের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফেসবুককে ৫ লাখ পাউন্ড জরিমানা করেছিল। যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটর মার্ক ওয়ার্নার বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য বেহাতের ঘটনায় এফটিসি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ নিয়েছে। এখন সময় এ বিষয়ে কংগ্রেসের কী করার আছে তা দেখার।’

এর আগে যখন ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা ফেসবুকের আট কোটি ৭০ লাখ ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁস করেছিল তখনও যুক্তারষ্ট্র তদন্তের কথা বলেছিল। পরে আবার অধিকতর তদন্তের কথা বলেছে ফেডারেল ট্রেড কমিশন। সেই ঘটনায় অবশ্য ফেইসবুকের ১০০ কোটি ডলার জরিমানা গুণতে হয়েছিল।

মন্তব্য করুন

টি মন্তব্য

Share.

Comments are closed.