লৈঙ্গিক কার্যপরিধির প্রচলিত ধারনা পরিবর্তনে গ্রামীণফোনের বুটক্যাম্প

0

লৈঙ্গিক কার্যপরিধির প্রচলিত ধ্যান ধারনা পরিবর্তনের লক্ষ্যে গ্রামীণফোন সম্প্রতি বনানী ক্লাব মাঠে আয়োজন করেছে #নিউনর্মাল উদ্যোগের প্রথম বুটক্যাম্প।

গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি, র‌্যাংকন মোটরবাইকস লিমিটেড এর সিইও কাজী আশিক উর রহমান, গ্রামীণফোনের চিফ বিজনেস অফিসার মাহমুদ হোসেইন, র‌্যাংকন মোটরবাইকস লিমিটেড এর হেড অফ মার্কেটিং মোহম্মদ শামস উদ্দীন এবং গ্রামীণফোনের চিফ হিউম্যান রিসোর্স অফিসার সৈয়দ তানভির হুসেইন এর উপস্থিতিতে এই বুটক্যাম্প এর উদ্বোধন করা হয়।

লৈঙ্গিত গতানুগতিক ধ্যান ধারনা এবং লিঙ্গ বৈষম্য বিশ্বজুড়ে বিদ্যমান এবং বাংলাদেশও এর বাইরে নয়। এই গতানুগতিক আর্থসামাজিক ধারনা ফলে নারী কর্মীরা বিভিন্নভাবে কর্মক্ষেত্রে তাদের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়। যেখানে কর্মক্ষেত্রে নারী ও পুরুষ উভয়ই একই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে কাজ করে সেখানে এধরনের মানসিকতা কর্মক্ষেত্রের মানস এবং মননকে ক্ষুন্ন করে।

গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি বলেন, “প্রচলিত ধ্যান ধারনা না পরিবর্তন করতে পারলে এবং আমাদের নারী কর্মীদের জন্য সমমর্যাদাময় একটি কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করতে না পারলে আমরা কখনই ডিজিটাল সেবার মাধ্যমে বাংলাদেশকে ক্ষমতায়নের লক্ষ্যমা্ত্রা অর্জন করতে পারবো না। তবে আনন্দের বিষয় হলো যে এই যাত্রা্য আমরা একা নই। এই সহযোগিতাপূর্ণ উদ্যোগটি একটি উজ্জ্বল ভবিষ্যতের লক্ষ্যে আমাদেরকে অনুপ্রানিত করবে।”

গ্রামীণফোন বিশ্বাস করে যে লৈঙ্গিক আখ্যায়ন একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মক্ষমতাকে বাঁধাগ্রস্ত করে। এই উদ্যোগের মূল লক্ষ্য হচ্ছে বৈষম্য দূরীকরন এবং কর্মক্ষেত্রে সামাজিক লৈঙ্গিক পশ্চাতপদতা বন্ধ করা। এই লক্ষ্যের প্রথম ধাপ হিসেবে #নিউনর্মাল উদ্যোগটি গৃহীত হয়েছে।

এই উদ্যোগের সহায়ক হিসেবে সুজুকি গ্রামীণফোনের কর্মীদের জন্য একটি দিনব্যাপী মোটরবাইক প্রশিক্ষণ কর্মশালা পরিচালনা করে। গতানুগতিক পিতৃতান্ত্রিকতার ধারনার বিপরীত মানসিকতা সৃষ্টির উদ্দেশ্য #নিউনর্মাল উদ্যোগটির। মোটরবাইক চালনা যেখানে শুধুমাত্র পুরুষদের কর্মক্ষমতার মধ্যে ধরা হয়ে থাকে, এই ধরনের একটি উদ্যোগ নারী ও পুরুষের মধ্যে সাম্যের সম্ভাবনা তুলে ধরে।

র‌্যাংকন মোটরবাইকস লিমিটেড এর সিইও কাজী আশিক উর রহমান বলেন, “সামাজিকভাবে দায়বদ্ধ প্রতিষ্ঠান হিসেবে গ্রামীণফোনের সুখ্যাতি রয়েছে এবং তাদের সাথে এধরনের একটি ক্ষমতায়নমূলক উদ্যোগের অংশ হতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমাদের প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য হচ্ছে দলগত কর্ম সম্পাদনার মাধ্যমে নিজেদেরকে একটি অগতানুগতিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে তুলে ধরা। #নিউনর্মাল উদ্যোগটি গৎবাঁধা সামাজিক ধারনাকে ভেঙে আমাদের এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে বলে আমার বিশ্বাস। আমরা যদি এরকম ছোট ছোট উদ্যোগের মাধ্যমে এগিয়ে যেতে পারি, তাহলে আমাদের ভবিষ্যত সম্ভাবনা অপার।”

গ্রামীণফোন এরকম আরো বুটক্যাম্পের আয়োজন করবে যেখানে উভয় লিঙ্গের সদস্যরা গতানুগতিক ধারনার বাইরে গিয়ে বিভিন্ন কাজ করবে।

মন্তব্য করুন

টি মন্তব্য

Share.

Comments are closed.